সোমবার, ২১ আগষ্ট, ২০১৭

আধুনিক শরীয়তপুরের রূপকার, মুক্তিযোদ্ধার অন্যতম সংগঠক
জাতীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাকের আজ ৭৪ তম জন্ম বার্ষিকী

আগস্ট ১, ২০১৭ 836 views 0
<span style='color:red;font-size:25px;'>আধুনিক শরীয়তপুরের রূপকার, মুক্তিযোদ্ধার অন্যতম সংগঠক</span><br> জাতীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাকের আজ ৭৪ তম জন্ম বার্ষিকী

সৈয়দ মেহেদী হাসান ও মোহাম্মদ নান্নু মৃধা,প্রথম নিউজ শরীয়তপুর জেলা টিম :-

১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধ কালীন সময়ের অন্যতম বীর যোদ্ধা, খ্যাতিমান ছাত্রনেতা, সাবেক মন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক। ৬২’র শিক্ষা আন্দোলন, ৬ দফা আন্দোলন, স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে যিনি সক্রিয় ভূমিকা পালন করে মানুষের হৃদয়ে জাতীয় বীর হিসেবে স্থান করে নিয়েছেন।

202527_02

রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য আব্দুর রাজ্জাক এর আজ ৭৪তম জন্মদিন। ১৯৪২ সালের এই দিনে তিনি শরীয়তপুর জেলার ডামুড্যা উপজেলার দক্ষিন ডামুড্যা গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।

একান্তই নিজস্ব গুণাবলী ও দক্ষতা দ্বারা এবং আপন মহিমায় যে কৃতি সন্তানগণ বাঙালী জাতির হৃদয়ে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবেন জাতীয় বীর আব্দুর রাজ্জাক তাদের মধ্যে অন্যতম। এই দেশ এবং জাতির কাছে যে নাম এবং ব্যক্তিদের কৃতিত্ব থাকবে চিরদিন, তাদের পাশে আব্দুর রাজ্জাক থাকবেন অমলিন।

202621_06
উপমহাদেশময় যে উত্তরাধিকারের রাজনীতির জয়-জয়কার, পিতৃ কিংবা বংশানুক্রমিক ধারাবাহিকতাই যেখানে রাজনীতির রক্ষাকবচ সেখানে আব্দুর রাজ্জাক ব্যতিক্রম।
ছাত্ররাজনীতির মধ্য দিয়েই আব্দুর রাজ্জাকের বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীবন শুরু হয় । মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি শরীয়তপুর-৩ আসন থেকে নির্বাচিত বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য এবং পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছিলেন।
এর আগে ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর আব্দুর রাজ্জাক পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। তার মেয়াদকালেই ভারতের সাথে দীর্ঘদিন ধরে ঝুলে থাকা ঐতিহাসিক গঙ্গার পানি বন্টন চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।যাতে তাঁর ব্যক্তিগত ক্যারিশমা অনেকাংশে ভূমিকা রেখেছে বলে সচেতনমহল মনে করে। এছাড়াও ১৯৭৫ সালের পর ২য় মেয়াদে আওয়ামীলীগের ক্ষমতারোহনের পর জাতীয় সংসদে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি হিসেবে তাঁর নেতৃত্বে ২০০৯ সালের জুলাই-আগস্টে একটি সংসদীয় প্রতিনিধি দল ভারতে টিপাইমুখ বাঁধ প্রকল্প পরিদর্শন করে।

202607_05
বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী এই রাজনীতিকের জীবনের প্রত্যেকটি পরতে পরতে মিশে আছে বাংলার স্বাধীনতাকামী মানুষের অধিকার আদায়ের ঐতিহাসিক সব আন্দোলন। ১৯৪২ সালে ডামুড্যা নিবাসী মুসলিম দম্পতি জনাব ইমামুদ্দিন এবং বেগম আকফাতুন্নেছার ঘরে জন্ম নেয়া দৃঢ় প্রতিজ্ঞ ও প্রাজ্ঞ এই রাজনৈতিক ১৯৬২’র শিক্ষা আন্দোলন থেকে শুরু করে শোষিত-নিপীড়িত বাঙালী জাতির প্রত্যেকটি অধিকার আদায়ের আন্দোলনে জড়িত ছিলেন সর্বাঙ্গীনভাবে ।এছাড়া ৬ দফা আন্দোলন, স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনি সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন।
জাতীয় সংসদ নির্বাচিত হন।হন। তাঁর নির্বাচনী এলাকা শরীয়তপুর-৩ (ডামুড্যা-গোসাইরহাট-ভেদরগঞ্জ)।
একাধ এবং শোষণে জর্জরিত বাঙালী জাতিকে উদ্ধারে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এগিয়ে আসেন এই মেধাবী রাজনৈতিক। বাঙালীদের জন্য কঠিন এবং উত্তাল রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে মাথার উপর হুলিয়া নিয়ে আব্দুর রাজ্জাক ১৯৬৬-১৯৬৭ ও ১৯৬৭-১৯৬৮ সালে পর পর দু’বার বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।
শরীয়তপুর জেলা উন্নয়নের অন্যতম রূপকার আব্দুর রাজ্জাক ডামুড্যা উপজেলার দক্ষিণ ডামুড্যা গ্রামে ১৯৪২ সালের ১ আগস্ট জন্মগ্রহণ করেন।

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • সর্বশেষ
  • সবচেয়ে পঠিত

জনমত জরিপ

অং সাং সু চির নোভেল পুরুষ্কার প্রত্যাহার করার জন্য আপনারা কি একমত ?

View Results

Loading ... Loading ...
ব্রেকিং নিউজ