সোমবার, ২১ আগষ্ট, ২০১৭

জীবন্ত আগ্নেয়গিরি মাউন্ট ফুজির সৌন্দর্যে মুগ্ধ পর্যটকরা

আগস্ট ৩১, ২০১৬ 199 views 0
জীবন্ত আগ্নেয়গিরি মাউন্ট ফুজির সৌন্দর্যে মুগ্ধ পর্যটকরা

প্রথম  নিউজ ডেস্ক  : যেকোনো সময় জেগে উঠতে পারে জাপানের ভয়ঙ্কর আগ্নেয়গিরি মাউন্ট ফুজি। বিরান করে দিতে পারে বিস্তীর্ণ এলাকা। তবে এ জন্য ভীত নয় জাপানিরা। প্রতিদিন শুধু জাপানিরা নয় বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার পর্যটক জীবন্ত আগ্নেয়গিরি মাউন্ট ফুজির ভয়ঙ্কর সৌন্দর্য দেখতে ছুটে আসে।

জাপানী ভূগোলবিদদের মতে, এ পর্যন্ত মাউন্ট ফুজির আশপাশে বড় তিনটি আগ্নেয়গিরির উদগীরণের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে প্রথমটি খ্রিষ্টপূর্ব ৬৬৩ সালে ও সবশেষটি হয়েছে ১৭০৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর। এই উদগীরণের ফলে অন্তত ৫০ বর্গ কিলোমিটারের বেশি এলাকা ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছিলো। এমনকি ১শ’ কিলোমিটার দূরে টোকিও শহরে ছড়িয়ে পড়েছিলো এর ছাই। কিন্তু কালক্রমে এ আগ্নেয়গিরি মাউন্ট ফুজি হয়ে উঠেছে এখন জাপানের অন্যতম প্রধান পর্যটন কেন্দ্র।

জাপানের টুরিস্ট গাইড প্রতিষ্ঠানগুলোর হিসেব অনুযায়ী, প্রতি বছর অন্তত ৫ লাখ দেশি-বিদেশি পর্যটক আসে আগ্নেয়গিরি মাউন্ট ফুজি দেখার জন্য। আর একই সময়ে ৩০ হাজার পর্বতারোহী মাউন্ট ফুজি জয় করে।

জাপানের যে কোনো স্থান থেকে মাউন্ট ফুজি দেখতে অতিক্রম করতে হবে অন্তত ছোট-বড় ৫০টি টানেল। ৩ হাজার ৭শ’ ৭৬ মিটার উচ্চতার এ মাউন্ট ফুজি দেখার জন্য সাধারণ পর্যটকদের গাড়িতে করে ২ হাজার ৩০৫ মিটার পর্যন্ত আসতে দেয়া হয়। বাকি পথ পাড়ি দিতে গেলে পূর্ব অনুমতি নিয়ে পাহাড় বেয়েই যেতে হবে।

মাউন্ট ফুজিকে স্থানীয়ভাবে তিন নামে অভিহিত করা হয়। এর মধ্যে মাউন্ট ফুজি নামটি সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। যার অর্থ ইউনিক বা অদ্বিতীয়। ২০১৩ সালে ইউনসেকো মাউন্ট ফুজিকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা করে।

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • সর্বশেষ
  • সবচেয়ে পঠিত

জনমত জরিপ

অং সাং সু চির নোভেল পুরুষ্কার প্রত্যাহার করার জন্য আপনারা কি একমত ?

View Results

Loading ... Loading ...
ব্রেকিং নিউজ