সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭

সাংগঠনিকভাবে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করার আহ্বান : রওশন এরশাদ

জানুয়ারি ১, ২০১৭ 181 views 0
সাংগঠনিকভাবে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করার আহ্বান : রওশন এরশাদ

প্রথম নিউজ প্রতিবেদক : জাতীয় পার্টি আর অন্যদের ক্ষমতায় যাওয়া সিঁড়ি হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন দলটির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী রওশন এরশাদ।

জনসভায় রওশন এরশাদ বলেন, আমরা কারও ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি হব না। আমরা নিজেরাই ক্ষমতায় যাব। এজন্য ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। গ্রামে গঞ্জে সব মানুষের কাছে যেতে হবে।

অপরদিকে রাষ্ট্র ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য সাংগঠনিকভাবে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান দলের চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জেনারেল হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ।

জাতীয় পার্টির ৩১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রবিবার (১ জানুয়ারি) ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত জনসভায় এসব কথা বলেন তারা।

এরশাদ বলেন, আমার জীবনের শেষ ইচ্ছা জাতীয় পার্টিকে আবার ক্ষমতায় দেখা। আমরা একাই আবার সরকার গঠন করব। জাতীয় পার্টি ক্ষমতায় গেলে দেশে প্রশাসনিক সংস্কারেরও ঘোষণা দেন এরশাদ। তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় গেলে প্রাদেশিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করব। নির্বাচন ব্যবস্থাকে পরিবর্তন করব। উপজেলা ব্যবস্থাকে আমরা কার্যকর করব। বর্তমানে উপজেলা ব্যবস্থা থাকলেও তাদের কোনো ক্ষমতা নেই।

তবে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য দলকে শক্তিশালী করার উপর জোর দেন এরশাদ। এজন্য নেতাকর্মীদের তৃণমূল পর্যায়ে দলের ভিত্তিকে মজবুত করার জন্যও নির্দেশ দেন তিনি। এরশাদ বলেন, ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য শক্তি প্রয়োজন। দলকে প্রস্তুত করতে হবে। প্রত্যেক ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে সংগঠন প্রতিষ্ঠা করতে হবে। দলকে শক্তিশালী করতে পারলে আমরা ক্ষমতার দুয়ারে পৌঁছব ইনশাআল্লাহ। আমার জীবনের শেষ ইচ্ছা দলকে আবার ক্ষমতায় নেওয়া।

নিজের ক্ষমতায় যাওয়ার ইতিহাসও বর্ণনা করেন এরশাদ। তিনি ক্ষমতা দখল করেননি উল্লেখ করেন বলেন, ১৯৮৪ সালের ২৪ মার্চ তৎকালীন রাষ্ট্রপতি আবদুস সাত্তারই সামরিক শাসন জারি করে আমাকে ক্ষমতা নিতে বলেন। আমি ক্ষমতা দখল করি নাই। এরপর দু’বছরের মধ্যেই আমরা জাতীয় সংসদ নির্বাচন দিয়েছি।

অপরদিকে জাতীয় পার্টি ফেলনা দল নয় উল্লেখ করে রওশন এরশাদ বলেন, অনেকে জাতীয় পার্টিকে নিয়ে কটুক্তি করেন। দলের চেয়ারম্যান পাঁচ পাঁচটি আসনে নির্বাচিত হয়ে প্রমাণ করেছেন জাতীয় পার্টি আর কোনো ফেলনা দল নয়। আমাদের ছোট করে দেখার অবকাশ নেই।

দেশের বর্তমান অবস্থা ভালো নেই বলেও উল্লেখ করেন রওশন। কথা বলেন এরশাদের মামলা প্রত্যাহার নিয়েও। তিনি বলেন, উনার মামলাগুলো নিয়ে আমরা কথা বলছি। মামলাগুলো আমরা প্রত্যাহার চাই। আমরা শক্তি সঞ্চয় করতে পারলে ‍অবশ্যই মামলা প্রত্যাহার হবে।

বক্তব্যের এক পর্যায়ে রওশন স্লোগান ধরেন, এই মুহূর্তে দরকার, এরশাদ সরকার। সমাবেশে দলের কো-চেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদসহ দলের কেন্দ্রীয় ও অঙ্গ সংগঠনের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

এদিকে জাতীয় পার্টির সমাবেশকে কেন্দ্র করে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও এর আশ-পাশের সড়কগুলোতে তীব্র যানজট দেখা দেয়। সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নেতাকর্মীরা মিছিলসহ সমাবেশে যোগ দেন। এক পর্যায়ে মৎস্য ভবন থেকে শাহবাগ মোড় পর্যন্ত রাস্তায় যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। এতে ওই এলাকার অন্য সড়কগুলোতে দেখা দেয় তীব্র যানজট। অনেককেই পায়ে হেঁটে গন্তব্য অভিমূখে যেতে দেখা যায়।

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনমত জরিপ

অং সাং সু চির নোভেল পুরুষ্কার প্রত্যাহার করার জন্য আপনারা কি একমত ?

View Results

Loading ... Loading ...
ব্রেকিং নিউজ