শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭

মানুষকে কুকুর বেশি ভালোবাসে, নাকি বিড়াল?

সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৭ 102 views 0
মানুষকে কুকুর বেশি ভালোবাসে, নাকি বিড়াল?

প্রথম নিউজ ডেস্ক : কে বেশি ভালোবাসে আপনাকে? পোষা কুকুরটি? নাকি প্রিয় বিড়ালটি? বিষয়টি নিয়ে মতভেদ আছে অনেক। যারা বিড়াল পোষেন, তারা মনে করেন বিড়ালই বেশি ভালোবাসে। কিন্তু ভালোবাসার প্রকাশটা বেচারা বিড়াল ঠিকঠাক জানাতে পারেনা। আর যারা কুকুর পোষেন, তাদের মতে কুকুরের ভালোবাসার তুলনা হয় না।

 

অবশেষে গবেষকদের একটি গবেষণার মাধ্যমে বহুদিনের এই বিতর্কের অবসান ঘটেছে। জানা গেছে আসলে কোন প্রাণীটি তার মালিককে বেশি ভালোবাসে।

 

গবেষণা ফলাফল জানার পর নিশ্চয়ই সেই সিনেমাটির কথা মরে পড়ছে। বাস্তব ঘটনাভিত্তিক রিচার্ড গিয়ারের ‘হাচি: অ্যা ডগস টেল’ ছবিটির কথা মনে আছে তো?

 

রিচার্ড গিয়ার ছবিতে অভিনয় করেছিলেন প্রফেসর পার্কার উইলসনের ভূমিকায়। ট্রেন স্টেশনে তিনি একটি হারিয়ে যাওয়া কুকুর খুঁজে পান। বহু খুঁজেও মালিক পাওয়া না গেলে স্ত্রীর আপত্তি থাকা সত্ত্বেও নিজের বাড়িতেই কুকুরটিকে রাখেন তিনি। এক জাপানী বন্ধুর মাধ্যমে কুকুরটির গলায় থাকা লকেট থেকে জানতে পারেন এটির নাম ‘হাচি।’

 

তিনি কাজে যাবার সময় এবং বাড়ি ফিরে আসার সময় হাচি তার জন্য ষ্টেশনে অপেক্ষা করে থাকতো। একদিন কর্মস্থলেই অসুস্থ হয়ে প্রফেসর মৃত্যুবরণ করেন। কিন্তু হাচি তার অপেক্ষার হাল ছাড়ে না। দীর্ঘ নয় বছর স্টেশনে তার জন্য অপেক্ষা করতে করতে অসুখে একদিন তার মৃত্যু হয়।

 

ছবিটি নির্মিত হয়েছিল বাস্তব ঘটনা অবলম্বনে। জাপানের টোকিও ইউনিভার্সিটির প্রোফেসর হিদেসাবুরো উনো এবং তার পোষা কুকুর হাচিকে নিয়ে তৈরি হয়েছে ছবিটি।

 

হাচির মৃত্যুর পর টোকিওর শিবুয়া স্টেশনে তার স্মরণে একটি ভাস্কর্য তৈরি করা হয় ‘হাচিকো’ নামে। মানুষের সঙ্গে পোষা কুকুরের আনুগত্য ও ভালোবাসা নিয়ে তৈরি এই ছবিটি কাঁদিয়েছে বহু দর্শককে। এই ভালবাসা কি শুধু ‘হাচি’তেই সীমাবদ্ধ? নাহ, আছে এমন আরও বহু ঘটনা।

 

গবেষণায় জানা গেছে, মানুষের মতোই কুকুরের শরীরেও আছে ‘লাভ হরমোন’ অক্সিটোসিন। মানুষ তার সঙ্গী অথবা সন্তানকে দেখে, তখন রক্তে এই হরমোনের পরিমাণ প্রায় ৪০%-৬০% পর্যন্ত বেড়ে যায়। কুকুরের ক্ষেত্রেও এমনটাই হয়। মানুষের সঙ্গে খেলাধুলা করার সময় কুকুরের শরীরে এই হরমোন নিঃসরণ হয়।

 

বিড়ালেরও এমনটা হয় কিনা তা এতদিন পরীক্ষা করে দেখা হয়নি। তাই নিউরো সাইন্টিস্ট ডঃ পল জাক গবেষণাটি কুকুর এবং বিড়াল দুটির প্রাণীর ওপরেই চালিয়েছেন। দশটি বিড়াল এবং দশটি কুকুরের ওপর গবেষণাটি চালানো হয়। প্রাণীগুলো তাদের মালিকের সঙ্গে খেলার ঠিক পরপরই এগুলোর লালা সংগ্রহ করা হয় অক্সিটোসিন পরীক্ষা করার জন্য। পরীক্ষায় দেখা যায় যে, কুকুরের হরমোন গড়ে ৫৭.২ শতাংশ বেড়ে গেছে, বিড়ালের ক্ষেত্রে এর হার মাত্র ১২ শতাংশ।

অর্থাৎ মানুষের প্রতি পোষা কুকুরের ভালবাসা বিড়ালের চাইতে অনেক বেশি। টেলিগ্রাফ

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • সর্বশেষ
  • সবচেয়ে পঠিত

জনমত জরিপ

অং সাং সু চির নোভেল পুরুষ্কার প্রত্যাহার করার জন্য আপনারা কি একমত ?

View Results

Loading ... Loading ...
ব্রেকিং নিউজ