বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

জঙ্গিরা হ্যাকিং শিখছে : গোয়েন্দা পুলিশ

জুন ১৩, ২০১৫ 7 views 0
জঙ্গিরা হ্যাকিং শিখছে : গোয়েন্দা পুলিশ

প্রথম নিউজ ডেস্ক নিজেদের কার্যক্রম পরিচালনার খরচ জোগানোর জঙ্গিরা হ্যাকিং শিখছে বলে গোয়েন্দা পুলিশ তথ্য পেয়েছে।
সম্প্রতি হুজি ও আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের নয় সদস্যকে গ্রেপ্তারের পর তাদের জিজ্ঞাসাবাদে এই তথ্য জানা গেছে বলে এক গোয়েন্দা কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন বলেন, তারা দলীয় তহবিলের জন্য অর্থ সংগ্রহে একাট্টা হয়ে ব্যাংকসহ বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে জালিয়াতি করে অর্থ লুটের পরিকল্পনায় ছিল। তারা হ্যাকিং শিখে কিভাবে ব্যাংকের গ্রাহকদের ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ডের পাসওয়ার্ড ভেঙে সেখান থেকে টাকা লুট করা যায়, তাও রপ্ত করতে চেয়েছিল।

সম্প্রতি সাভারের আশুলিয়ায় কমার্স ব্যাংকে ডাকাতিতে জঙ্গি সম্পৃক্ততার বিষয়টি ধরা পড়ার পর গোয়েন্দা কর্মকর্তারা এদিকে মনোযোগী হয়েছেন।

এরপর রাজধানীর বনশ্রী ও সূত্রাপুর থেকে যে নয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তারা দিনাজপুরের একটি বেসরকারি ব্যাংকে ডাকাতির পরিকল্পনা করছিল বলে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছে।

তারা বলছেন, ওই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তারা বিভিন্ন ধরনের বোমা ও বিস্ফোরক তৈরি করতে শিখেছিল।

গত সপ্তাহে ওই নয়জনকে আটকের সময় বিভিন্ন ধরনের ৫ কেজি বিস্ফোরক, বোমা তৈরির বিভিন্ন সরঞ্জাম, আটটি হাতবোমা, ছয়টি চকলেট বোমাও উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন- কাজী ইফতেখার খালেদ ওরফে খালেদ, ফাহাদ বিন নুরুল্লাহ কাশেমী ওরফে ফাহাদ, মো. রাহাত, দ্বীন ইসলাম, আরিফুল করিম চৌধুরী ওরফে আদনান, মো. নুরুল ইসলাম, মাওলানা নুরুল্লাহ কাশেমী, মো. দেলোয়ার হোসেন, মো. ইয়াসিন আরাফাত।

গোয়েন্দা কর্মকর্তা ছানোয়ার বলেন, তারা উগ্র মতাদর্শ প্রচারের জন্য ‘বাংলাদেশ জিহাদী গ্রুপ’ নামের একটি জঙ্গি গোষ্ঠী প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। মূলত ইন্টারনেটে যোগাযোগের মধ্য দিয়ে তারা দলীয় কর্মী সংগ্রহ করে।

জেএমবি আগেই নিষিদ্ধ হয়েছিল। আনসারুল্লাহ বাংলা টিমকে সম্প্রতি নিষিদ্ধ করে সরকার। সূত্র: বিডিনিউজ

Your email address will not be published. Required fields are marked *

জনমত জরিপ

অং সাং সু চির নোভেল পুরুষ্কার প্রত্যাহার করার জন্য আপনারা কি একমত ?

View Results

Loading ... Loading ...
ব্রেকিং নিউজ