রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

সালাহ উদ্দিনের সময় কাটছে নামাজ, কোরআন তেলাওয়াত ও বই পড়ে : হাসিনা আহমেদ

জুন ১৪, ২০১৫ 75 views 0

প্রথম নিউজ প্রতিনিধি, শিলং : ভারতের শিলংয়ে অবস্থানরত সালাহ উদ্দিন আহমেদ বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

 

শনিবার সালাহ উদ্দিন আহমেদের স্ত্রী ও সাবেক এমপি হাসিনা আহমেদ একমাস পর শিলং থেকে দেশে ফিরে এ কথা বলেছেন। পাশাপাশি তিনি সালাহ উদ্দিনের সন্ধান পাওয়ায় বিএনপি এবং জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। অবৈধ অনুপ্রবেশ মামলায় ভারতের শিলংয়ে আদালতে আইনী লড়াই করছেন দলটির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ।

 

বিএনপির এই নেতা মনে করেন ভারতের শিলংয়ের গল্ফ লিঙ্ক এলাকায় আটক হওয়ার পর থেকে তার দল, বিশেষ করে দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান তাকে উদ্ধারের জন্য প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়েছেন।

 

শনিবার গুলশানে তার বাসায় হাসিনা আহমেদ শিলংয়ে সালাহ উদ্দিনের জীবন-যাপন, চিকিৎসা, আইনি লড়াই এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

 

তিনি জানান, সালাহ উদ্দিন আহমেদ এখন নিয়মিত নামাজ আদায়, কোরআন তেলাওয়াত এবং বই পড়েই শিলং-এ সময় কাটাচ্ছেন। বাংলাদেশ থেকে তার নির্বাচনী এলাকার অনেকেই শিলং গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করছেন। এলাকার লোকজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে তাদের এবং দেশের খোঁজ খবর নেয়া তার প্রতিদিনের রুটিনে পরিণত হয়েছে।

 

তিনি শর্তসাপেক্ষে শিলংয়ের আদালত থেকে বর্তমানে জামিনে আছেন। প্রতি ৭ দিন পর-পর তাকে আদালতে হাজিরা দিতে হয়। তার জন্য শিলংয়ের একটি তিন তারকা মানের গেস্ট হাউস ভাড়া নেওয়া হয়েছে। সেখানে আমরা থাকছি। কাজ ছাড়া একদমই গেস্ট হাউস থেকে বের হন না তিনি।

 

এছাড়া প্রায়ই তার আইনজীবী এসপি মহন্তোর চেম্বার যান তিনি। আর পুলিশ সুপারের সঙ্গেও দেখা করতে যান মাঝেমধ্যে। হাসিনা আহমেদ আরো জানান, ওনার (সালাহ উদ্দিন) ২ কেজি ওজন কমে গিয়েছিলো। এখন সেটা পুনরুদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

 

তবে এখনো কিডনি সমস্যা, চর্মরোগ এবং ব্যাক পেইন রয়ে গেছে। ব্যাক পেইনের জন্য একজন ফিজিও থেরাপিস্ট গেস্ট হাউসে একদিন পর-পর আসেন।

 

দুই সপ্তাহ পর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে আবার নেগরিমস হাসপাতালে যাবেন সালাহ উদ্দিন বলে হাসিনা আহমেদ জানান। উত্তরার আত্মীয়র বাসায় থেকে নিখোঁজ হওয়ার প্রায় দু’ মাস পর নিজেকে শিলংয়ের গল্ফ লিঙ্ক এলাকায় ছাড়া পান বিএনপির এই আলোচিত নেতা।

 

পরে স্থানীয় পুলিশ তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মানসিক হাসপাতাল ও পরে শিলং সিভিল হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করায়। এরপর তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য নেগরিমস হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসায় ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন সালাহ উদ্দিন আহমেদ।

 

শিলংয়ে প্রথমে স্বামীর সঙ্গে দেখা করার পর স্ত্রী হাসিনা আহমেদ বলেন, গত ১৮ মে রাতে স্বামীর সঙ্গে প্রথম সাক্ষাত করেই কান্নাই ছিল তার বেশি। তিনি বাবা হিসেবে প্রথমেই তার জানতে চান কেমন আছে সন্তানেরা। এরপর তিনি দেশ এবং দেশের মানুষের খোঁজ নিয়েছেন।

 

হাসিনা আহমেদ আরও বলেন, সালাহ উদ্দিন সবসময় দেশে ফিরতে চান। তার উন্নত চিকিৎসাও জরুরি। কিন্তু সবকিছু নির্ভর করছে শিলং মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের উপর।

 

আর সে দেশের আদালতের ওপর নির্ভর করছে তাকে সিঙ্গাপুর নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি। তার বড় মেয়ে মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফিরলে, অন্য দুই সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে খুব শিগগিরই আবার শিলং যাবেন তিনি বলে জানিয়েছেন হাসিনা আহমেদ।

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • সর্বশেষ
  • সবচেয়ে পঠিত

জনমত জরিপ

অং সাং সু চির নোভেল পুরুষ্কার প্রত্যাহার করার জন্য আপনারা কি একমত ?

View Results

Loading ... Loading ...
ব্রেকিং নিউজ