রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে উত্তর এবং মধ্যাঞ্চলের অনেক এলাকা প্লাবিত

জুন ১৫, ২০১৫ 28 views 0

প্রথম নিউজ প্রতিনিধি, কুড়িগ্রাম : বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে উত্তর এবং মধ্যাঞ্চলে বন্যার আরও অবনতি হয়েছে। তলিয়ে গেছে নতুন নতুন এলাকা। বিভিন্ন এলাকায় বাঁধে ফাটল ধরায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে নদী তীরে। বেশিরভাগ এলাকাতেই ত্রাণ তৎপরতা শুরু করতে পারেনি প্রশাসন।

 

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার পাঁচগাছি ইউনিয়নে নতুন করে প্লাবিত হয়েছে পাঁচটি গ্রাম। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে উলিপুর, চিলমারী, রৌমারী ও রাজীবপুর উপজেলার লাখো মানুষ।

 

বন্যা কবলিত এলাকায় সুপেয় পানি ও খবার খাবার সংকট এবং পয়োনিষ্কাশন সমস্যা দেখা দিয়েছে। বন্ধ হয়ে গেছে শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। পানির তোড়ে ভেসে গেছে ইউনিয়নের দুই শতাধিক ঘর-বাড়ি।

 

বন্যা কবলিত বেশিরভাগ এলাকায় এখনও শুরু হয়নি ত্রাণ তৎপরতা। স্থানীয় প্রশাসন অবশ্য বলছে, ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করেছে তারা।

 

বগুড়ার ধুনট উপজেলার চিকাশি ইউনিয়নে নতুন করে প্লাবিত হয়েছে অনেক এলকা। সারিয়াকান্দির কুতুবপুর এলাকায় পানি বেড়ে অনেক ঘর-বাড়ি তলিয়ে গেছে।

 

লালমনিরহাটে তিস্তার পানি বাড়ায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে নিম্নাঞ্চলের মানুষের মধ্যে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে খুলে দেয়া হয়েছে তিস্তা ব্যারেজের ৪৪টি স্লুইস গেট।

 

জামালপুরের ইসলামপুর, দেওয়ানগঞ্জ ও মাদারগঞ্জে প্লাবিত হয়েছে নতুন নতুন এলাকা।

 

গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সুন্দরগঞ্জ, ফুলছড়ি, সাঘাটা ও সদর উপজেলার নিম্নাঞ্চল ও চর এলাকায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছে কয়েক হাজার মানুষ।

 

পানি না বাড়লেও দুর্ভোগ বেড়েছে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় পানিবন্দি হাজারো মানুষের। সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ত্রাণ দেয়া হলেও তা পর্যাপ্ত নয় বলে অভিযোগ বন্যকবলিতদের।

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  • সর্বশেষ
  • সবচেয়ে পঠিত

জনমত জরিপ

অং সাং সু চির নোভেল পুরুষ্কার প্রত্যাহার করার জন্য আপনারা কি একমত ?

View Results

Loading ... Loading ...
ব্রেকিং নিউজ